Wifi কলিং সম্পর্কে জানুন

0
460

ঘরের মধ্যে ভালো নেটওয়ার্ক ধরে না, শান্তিতে কথা বলতে পারেন না ? আপনার ফোনে Wifi Calling এর সুবিধা থাকলে এক্টিভেট করে নিন। যেকোনো Wifi নেটওয়ার্ক ব্যবহার করেই কল করতে পারবেন। ভারতে জিয়ো, এয়ারটেল সমস্ত নেটওয়ার্ক সার্ভিস প্রদানকারীরা Wifi কলিং সাপোর্ট করছে। আর হ্যাঁ অতিরিক্ত কোনো খরচ হয়না এই Wifi Calling সুবিধার জন্য।

Wi-Fi calling আসলে কি ?

ওয়াই ফাই কলিং একটি প্রযুক্তি নির্ভর সুবিধা যা একজন মোবাইল ব্যবহারকারীকে মোবাইল নাম্বারের উপস্থিতিতে যেকোনো Wi-Fi নেটওয়ার্কে যুক্ত থেকে কল করতে বা কল রিসিভ করতে সাহায্য করে।

মোবাইলে সিম থাকলেই তো কল করা যায়! তাহলে Wi-Fi calling কেন ব্যবহার করবেন ?

প্রত্যন্ত গ্রামের যে সমস্ত স্থানে নেটওয়ার্ক এর অবস্থা ভালো নয় বা কোনো বিল্ডিং এর যে সমস্ত স্থানে সেলুলার ডার্ক জোন রয়েছে বা যেখানে সিগন্যাল ঠিকভাবে পাওয়া যায় না সেখানে এই ওয়াই ফাই কলিং বেশ কার্যকরী।

Wi-Fi calling এর সুবিধা কি কি ?

  • সেলুলার সিগন্যাল কম থাকলেও Wi-Fi calling এর মাধ্যমে ঠিক থাকে ভাবে কল করতে পারবেন।
  • Wi-Fi calling এর সুবিধা বিনামূল্যে পাওয়া যায়, তবে কথা বলার খরচ আপনার বর্তমান প্ল্যান অনুযায়ী হবে।

Wi-Fi calling করতে গেলে কি কি থাকতে হবে ?

  • আপনার ফোন (হ্যান্ডসেট) Wi-Fi calling সুবিধা যুক্ত হতে হবে।
  • আপনার ফোনের সিম কার্ড 4G হতে হবে এবং তাতে সক্রিয় প্ল্যান থাকতে হবে।

Wi-Fi calling কিভাবে চালু করবেন ?

  • প্রথমে দেখে নিতে হবে আপনার ফোন Wi-Fi calling সাপোর্ট করে কি না, যদি করে তাহলে আপনার ফোনের সেটিংস এ গিয়ে Wi-Fi calling চালু করে দিতে হবে।
  • এরপর আপনি যেকোনো Wi-Fi নেটওয়ার্কে আপনার ফোনটি কানেক্ট করবেন।
  • নির্বিঘ্নে কল করার অভিজ্ঞতা পেতে আপনার ফোনে VoLTE ও Wi-Fi Calling দুটি অপশনই একসাথে চালু রাখবেন।

Wi-Fi calling এর মাধ্যমে কিভাবে কল করবেন ?

Wi-Fi Calling চালু করার পর আপনাকে আর কিছুই করতে হবে না। আপনি যেমন ভাবে কল করতেন তেমন ভাবেই কল করবেন। ফোনের সিস্টেম নিজে থেকেই প্রয়োজন মতো Wi-Fi Calling মোড বা cellular network মোডে কল করার মাধ্যম পরিবর্তন করে নেবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here