প্রচেষ্টা (Prachesta) প্রকল্প – পশ্চিমবঙ্গের অসংগঠিত ক্ষেত্রের শ্রমিকদের জন্য ১০০০ টাকা ভাতা

0
14291

কোভিড-১৯ ছড়িয়ে পড়া রুখতে সারা দেশ জুড়ে লকডাউন হওয়াতে অসংগঠিত ক্ষেত্রের দিনমজুর / শ্রমিকেরা কাজ হারিয়েছেন এই অবস্থাতে তারা কঠিন সময়ের মধ্য দিয়ে জীবনধারণ করছেন। অসংগঠিত ক্ষেত্রের কাজ হারানো দিনমজুর / শ্রমিকেরা যাদের অন্য কোনো উপার্জনের পথ নেই, তাদের এই চরম সংকটে সাহায্য করার জন্য রাজ্য সরকার প্রচেষ্টা প্রকল্প নামে একটা নতুন যোজনা চালু করেছে। এই প্রচেষ্টা প্রকল্পে এককালীন ১০০০ টাকা ভাতা পাওয়া যাবে।

প্রচেষ্টা স্কিম কার্যকরী থাকার সময়কাল

১৫ এপ্রিল ২০২০ থেকে শুরু হয়ে ১৫ মে ২০২০ অবধি এই স্কিম কার্যকরী থাকবে।

প্রচেষ্টা প্রকল্পের নতুন আপডেট

প্রচেষ্টা প্রকল্পে আবেদন ও অনুমোদন পদ্ধতি বদলেছে মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে আবেদন করতে হবে এবং কারা কারা আবেদন করতে পারবে সেই ক্রাইটেরিয়া তে কিছু বদল হয়েছে! এই পোস্ট আরো একবার পুরোটা দেখে নেওয়ার অনুরোধ করছি।

আপনারা এই পোস্ট দেখতে থাকুন নিয়মিত, প্রচেষ্টা প্রকল্প সম্পর্কে কোনো আপডেট পেলেই এখানে জানিয়ে দেওয়া হবে।

প্রচেষ্টা স্কিমে কারা আবেদন করতে পারবে

নোবেল করোনা ভাইরাস পরিস্থিতিতে লকডাউনের ফলে অসংগঠিত ক্ষেত্রের কাজ হারানো যেকোনো দিনমজুর / শ্রমিকেরা যারা চরম সংকটে রয়েছেন এবং যাদের অন্য কোনো উপার্জনের পথ নেই এবং যারা পশ্চিমবঙ্গে স্থায়ী বাসিন্দা তারা নিচে উল্লেখ করা শর্তাবলী পূরণ করলে প্রচেষ্টা প্রকল্পে আবেদন করতে পারবেন।

  1. আবেদনকারীকে কে পরিবারের একমাত্র উপার্জনকারী হতে হবে।
  2. আবেদনকারীকে স্বনিযুক্ত কর্মী হতে হবে এবং কোনো সরকারি বা বেসরকারি নিয়োগকর্তার অধীনে কাজ করলে চলবে না।
  3. আবেদনকারীকে রাজ্যের কোনও সামাজিক পেনশন প্রকল্পের সুবিধাভোগী হওয়া যাবে না।
  4. আবেদনকারীকে সামাজিক সুরক্ষা যোজনা (SSY) স্কিমের সুবিধাভোগী হওয়া যাবে না।
  5. আবেদনকারী MGNREGA নিবন্ধিত কর্মী হতে পারবেন না।
  6. আবেদনকারী একজন কৃষক শ্রমিক হতে পারবেন না।
  7. আবেদনকারী কৃষি ও কৃষি সম্পর্কিত কাজে নিযুক্ত থাকলে হবেনা।
  8. পরিবার থেকে কেবলমাত্র একজন ব্যক্তি এই স্কিমের সুবিধা পেতে পারেন। স্বামী, স্ত্রী এবং অবিবাহিত সন্তান নিয়ে একটি পরিবার ধরা হবে এই স্কিমে।
  9. ব্যাংক অ্যাকাউন্ট নম্বরটি ইউনিক হতে হবে।

প্রচেষ্টা প্রকল্পে কিভাবে আবেদন করতে হবে ?

প্রচেষ্টা (Prachesta) প্রকল্পের সুবিধা পাওয়ার উপযুক্ত ও আবেদন করতে আগ্রহী শ্রমিকেরা মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে সহজেই আবেদন করতে পারবেন। প্রচেষ্টা প্রকল্পের এই www.prachestawb.in ওয়েবসাইট অথবা গুগল প্লে স্টোর থেকে আবেদন করার জন্য মোবাইল অ্যাপ ডাউনলোড করা যেতে পারে। প্রচেষ্টা প্রকল্পের আবেদন করার প্রক্রিয়া নিয়ে আরো একটি পোস্ট করা হয়েছে প্রচেষ্টা প্রকল্পের আবেদন পদ্ধতি জানতে নিচের লিংকে ক্লিক করুন।

প্রচেষ্টা প্রকল্পে আবেদন প্রক্রিয়াকরণ ও প্রদান প্রক্রিয়া

প্রচেষ্টা প্রকল্পের আবেদন থেকে অনুমোদন সমস্ত প্রক্রিয়াটি চলবে একটি নির্দিষ্ট ওয়েব পোর্টাল মারফত। মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট সহ আবেদন করলে অনলাইন সিস্টেমে প্রচেষ্টার আবেদন জমা হয়ে যাবে। অনলাইনে জমা হওয়া সমস্ত আবেদনগুলি স্ক্রুটিনি করা হবে। জেলার ক্ষেত্রে গ্রাম এলাকার জন্য BDO এবং শহর এলাকার জন্য SDO এর দপ্তর থেকে আবেদন গুলির স্ক্রুটিনি করা হবে। কলকাতা মিউনিসিপাল কর্পোরেশন এলাকার জন্য আবেদন গুলির স্ক্রুটিনি করবেন KMC এর কমিশনার। স্ক্রুটিনি করার পর উপযুক্ত আবেদনগুলি চূড়ান্ত অনুমোদন করবেন জেলাশাসক / KMC কমিশনার। সুবিধাভোগীর তালিকা অনুযায়ী সমস্ত যাচাইকরা এবং সুপারিশ করা আবেদনগুলির ভাতা অনুমোদন করবে নোডাল ডিপার্টমেন্ট (লেবার ডিপার্টমেন্ট) এবং নির্দিষ্ট ব্যাংকে পাঠানো হবে পেমেন্টের জন্য।


প্রচেষ্টা প্রকল্পের বিজ্ঞপ্তি / এই পোস্টে দেওয়া তথ্যের উৎস সম্পর্কে

প্রথম বিজ্ঞপ্তি

  • নোডাল ডিপার্টমেন্ট : লেবার ডিপার্টমেন্ট, পশ্চিমবঙ্গ সরকার
  • বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের দপ্তর : ফিনান্স ডিপার্টমেন্ট (অডিট ব্রাঞ্চ), পশ্চিমবঙ্গ সরকার
  • বিজ্ঞপ্তি নম্বর : 1572-F(Y)
  • বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের তারিখ : ১০ এপ্রিল ২০২০
  • বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের ওয়েবসাইট লিংক / তথ্য সূত্র : www.wb.gov.inনোটিশ ডাউনলোড

দ্বিতীয় বিজ্ঞপ্তি

  • বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের দপ্তর : লেবার কমিশনারের দপ্তর, পশ্চিমবঙ্গ সরকার
  • বিজ্ঞপ্তি নম্বর : NO- 05/Prachesta/WBUSWWB
  • বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের তারিখ : ০২ মে ২০২০

আপনি কি স্নেহের পরশ প্রকল্প সম্পর্কে জানতে চান ? নিচের বোতামে ক্লিক করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here