জয় বাংলা পেনশন প্রকল্প – তফশিলী বন্ধু ও জয় জোহার সহ অন্য পেনশন স্কিমগুলি একত্রে – jaibangla.wb.gov.in

0
1993

জয় বাংলা ২০২০, পশ্চিমবঙ্গ সরকারের সামাজিক পেনশন প্রকল্প। পশ্চিমবঙ্গ সরকার ১ এপ্রিল ২০২০ থেকে জয় বাংলা (Jai Bangla) নামক পেনশন প্রকল্প চালু করার কথা ভেবেছে, যা ৬ মার্চ ২০২০ তারিখে ফিনান্স ডিপার্টমেন্ট দ্বারা প্রকাশিত স্মারকলিপি নম্বর : 1157-F(Y) থেকে জানা গেছে। তফশিলী বন্ধু ও জয় জোহার নামে দুটি নতুন পেনশন স্কিম চালু হবে এই জয় বাংলা (Jay Bangla) নামক পেনশন প্রকল্পে এবং পূর্বের কিছু বার্ধক্য পেনশন স্কিম / বিধবা, বিকলাঙ্গ ভাতা গুলিকেও এই জয় বাংলা পেনশন প্রকল্পের অধীনে আনা হবে। তফশিলী বন্ধু পেনশন স্কিমটি তফশিলী জাতি (Scheduled Caste) সম্প্রদায় ভুক্ত বয়স্ক মানুষদের জন্য আর জয় জোহার পেনশন স্কিমটি তফসিলী উপজাতি (Scheduled Tribe) সম্প্রদায় ভুক্ত বয়স্ক মানুষদের জন্য।

রাজ্য সরকারের এই জয় বাংলা ২০২০ পেনশন প্রকল্প সম্পর্কে আপনি হয়তো টিভিতে, সংবাদপত্রে বিজ্ঞাপন দেখেছেন। আসুন আরো বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক।

একঝলকে জয় বাংলা (Jai Bangla) পেনশন যোজনা

  • জয় বাংলা প্রকল্পে চালু হচ্ছে তফশিলী বন্ধুজয় জোহার নামে দুটি নতুন পেনশন যোজনা।
  • জয় বাংলা প্রকল্পে সুবিধাভোগীরা ১০০০ টাকা ভাতা পাবেন প্রতি মাসে।
  • রাজ্য থেকে সরাসরি পেনশন দেওয়া হবে এবং পেনশনের টাকা প্রতিমাসে ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে পাওয়া যাবে।
  • পুরানো বার্ধক্য পেনশন স্কিম / বিধবা, বিকলাঙ্গ ভাতা ও এই জয় বাংলা পেনশন প্রকল্পের অধীনে আনা হবে এবং ভাতার পরিমান ৬০০-৭৫০ টাকা থেকে বেড়ে ১০০০ হবে।
  • W&CD বিভাগের বিকলাঙ্গ পেনশন স্কিমটি মানবিক স্কিমের সঙ্গে যুক্ত হচ্ছে আর ট্রাইবাল ডেভেলপমেন্ট বিভাগের বার্ধক্য পেনশন স্কিম জয় জোহার স্কিমের সঙ্গে যুক্ত হচ্ছে।

কোন কোন পেনশন স্কিম জয় বাংলা (Jai Bangla) প্রকল্পে থাকছে ?

পূর্বের চালু থাকা কিছু পেনশন/ভাতা প্রকল্পগুলিকে জয় বাংলা প্রকল্পের মধ্যে একত্রিত করা হবে, পুরানো নতুন স্কিমগুলি মিলিয়ে কি কি পেনশন স্কিম থাকছে সেগুলি নিচে লিখে দেওয়া হলো।

  • তফশিলী বন্ধু (নতুন স্কিম)
  • জয় জোহার (নতুন স্কিম)
  • মানবিক
  • লোক প্রসার প্রকল্প
  • বার্ধক্য ও বিধবা পেনশন স্কিম (W&CD)
  • বার্ধক্য ও বিধবা পেনশন স্কিম (P&RD, UD&MA)
  • কৃষকদের বার্ধক্য পেনশন
  • শিল্পী ও তাঁতী দের বার্ধক্য পেনশন

তফশিলী বন্ধু পেনশন প্রকল্প সম্পর্কে ?

  • তফশিলী বন্ধু প্রকল্পে আবেদনকারীকে পশ্চিমবঙ্গের বাসিন্দা হতে হবে।
  • তফশিলী বন্ধু প্রকল্পে পেনশন প্রাপকের বয়স ০১/০১/২০২০ অনুযায়ী ৬০ বছর বা তার বেশি হতে হবে।
  • তফশিলী বন্ধু প্রকল্পে আবেদনকারীকে তফশিলী জাতি (Scheduled Caste) সম্প্রদায় ভুক্ত হতে হবে।
  • তফশিলী বন্ধু প্রকল্পে আবেদনকারী অন্য কোনো সামাজিক নিরাপত্তা সংক্রান্ত পেনশন স্কিম, সরকারি পেনশন স্কিম অথবা অন্য কোনো দপ্তর থেকে প্রাপ্ত পেনশন এর সুবিধাভোগী হলে এই প্রকল্পের সুবিধা পাবেন না।

জয় জোহার পেনশন প্রকল্প সম্পর্কে ?

  • জয় জোহার প্রকল্পে আবেদনকারীকে পশ্চিমবঙ্গের বাসিন্দা হতে হবে।
  • জয় জোহার প্রকল্পে পেনশন প্রাপকের বয়স ০১/০১/২০২০ অনুযায়ী ৬০ বছর বা তার বেশি হতে হবে।
  • জয় জোহার প্রকল্পে আবেদনকারীকে তফশিলী উপজাতি / আদিবাসী (Scheduled Tribe) সম্প্রদায় ভুক্ত হতে হবে।
  • জয় জোহার প্রকল্পে আবেদনকারী অন্য কোনো সামাজিক নিরাপত্তা সংক্রান্ত পেনশন স্কিম, সরকারি পেনশন স্কিম অথবা অন্য কোনো দপ্তর থেকে প্রাপ্ত পেনশন এর সুবিধাভোগী হলে এই প্রকল্পের সুবিধা পাবেন না।

কিভাবে জয় বাংলা (Jai Bangla) পেনশন প্রকল্পের আবেদন করবেন ?

অফিসিয়াল স্মারকলিপি থেকে জানা গেছে, জয় বাংলা (Jay Bangla) ২০২০ পেনশন প্রকল্পের আবেদন অনলাইন এবং অফলাইন উভয় মাধ্যমে করা যাবে। অনলাইনে আবেদন করতে চাইলে www.jaibangla.wb.gov.in এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে করা যাবে। অফলাইনে আবেদন করতে চাইলে গ্রাম এলাকার জন্য ব্লক ডেভেলপমেন্ট অফিস (BDO), মিউনিসিপালিটি ও কলকাতা মিউনিসিপাল কর্পোরেশন এর বহির্ভুত এলাকার জন্য সাব ডিভিশনাল অফিস (SDO) এবং কলকাতা মিউনিসিপাল কর্পোরেশন এর কমিশনার এর অফিস থেকে ফর্ম সংগ্রহ করে নিতে হবে এবং পূরণ করে নির্দিষ্ট অফিসে জমা দিতে হবে।

জয় বাংলা (Jai Bangla) পেনশন প্রকল্পের আবেদন করার আগে কোন কোন ডকুমেন্ট প্রস্তুত করে রাখবেন ?

  • পরিচয়ের প্রমান (Identity Proof)
  • ঠিকানার প্রমান (Address Proof)
  • বয়সের প্রমান (Age Proof)
  • ব্যাঙ্ক পাস্ বই (Bank Passbook)
  • জাতিগত শংসাপত্র (Caste Certificate)

আরও কিছু কথা :-

অফিসিয়াল স্মারকলিপিতে www.jaibangla.wb.gov.in এই ওয়েবসাইটের কথা উল্লেখ থাকলেও, বর্তমানে এই ওয়েবসাইট কাজ করছে না। আশা করা যায় শীঘ্রই ওয়েবসাইট খুলে যাবে।

অনলাইন বা অফলাইনে (ফর্ম জমার) মাধ্যমে কিভাবে আবেদন করবেন সেই ব্যপারে সম্পূর্ণ তথ্য আমরা এখনই দিতে পারছি না। আবেদন প্রক্রিয়া সম্পর্কে জানতে আপনার স্থানীয় এলাকার প্রতিনিধি, পঞ্চায়েত অফিস, মিউনিসিপালিটি অফিসে যোগাযোগ করতে পারেন।

আমরা আরও অনুরোধ করছি এই পোস্ট এর লিংক সেভ করে রাখুন, আমরা আরও কিছু জানতে পারলে এই পোস্ট আপডেট করে আপনাদের জানিয়ে দেব। জয় বাংলা (Jai Bangla) প্রকল্প সম্পর্কে জানতে এই পোস্ট নিয়মিত দেখতে থাকুন। আর অবশ্যই এই পোস্ট শেয়ার করুন, ধন্যবাদ!

তথ্য সূত্র : অফিসিয়াল মেমোরেন্ডাম / No. 1157-F(Y) / ০৬/০৩/২০২০

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here