হাতে ফাঁকা সময় রয়েছে ? গুগল ক্রাউডসোর্স করুন

0
309
Crowdsource by Google
Google Crowd Source

হাতে ফাঁকা সময় আছে ? সময় কাটাতে ক্রাউডসোর্স করতে পারেন। এটি একটি গুগল প্রজেক্ট, এর উদ্দেশ্য হলো বিপুল জনগণ এর কার্য্য ক্ষমতাকে কাজে লাগিয়ে কোনো উদ্দেশ্য সফল করা। ক্রাউডসোর্স এর মাধ্যমে আপনাকে কিছু প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করা হয় বা সহজ কিছু কাজ করতে দেওয়া হয়। আপনার পছন্দমতো সময়ে আপনি গুগল ক্রাউডসোর্স এর যেকোনো কাজই করতে পারেন। ক্রাউডসোর্স এর মাধ্যমে আপনার দেওয়া উত্তর গুলো বা আপনি যে কাজগুলি করেন সেগুলি বিভিন্ন গুগল প্রোডাক্ট কে উন্নত করে যাতে ওই প্রোডাক্টগুলি থেকে আরো ভালো পরিষেবা পাওয়া যায়। গুগল সার্চ, গুগল ট্রান্সলেট, গুগল ম্যাপস, জিবোর্ড (গুগল এন্ড্রইড কীবোর্ড) ইত্যাদি পরিষেবা গুলি প্রত্যেকদিন কোটি কোটি গ্রাহক ব্যবহার করেন ফলে, এই প্রোডাক্ট গুলো উন্নত হলে এইগুলি থেকে আরো ভালো পরিষেবা পাওয়া যাবে এবং এগুলি আরো ব্যবহার উপযোগী হবে। ক্রাউডসোর্স এ মেশিন লার্নিং পদ্ধতি রয়েছে, আপনার দেওয়া উত্তর গুলো আসলে কম্পিউটার মেশিন কে কোনো জিনিস বুঝতে সাহায্য করে, কম্পিউটার মেশিনাকে যত ভালো বোঝানো যাবে তত ভালো পরিষেবা পাওয়া যাবে, এই হলো আসল ফান্ডা!

গুগল ক্রাউডসোর্স এর বিভিন্ন কাজ সম্পন্ন করে আপনি কি পাবেন ?

গুগল ক্রাউডসোর্স এর কাজ করলে আপনি কোনো টাকা পাবেন না। স্বেচ্ছাসেবক হিসাবে আপনার ফাঁকা সময়ে আপনি এই কাজটি করতে পারেন। তবে হ্যাঁ, পুরস্কার আর পরিচিতি পেতে পারেন আর গুগল ইভেন্টে যাওয়ার সুযোগ পেতে পারেন। আপনাকে উৎসাহিত করতে ক্রাউডসোর্স এ অ্যাচিভমেন্ট সেকশন রয়েছে সেখানে বিভিন্ন লেভেল ও ব্যাজ রয়েছে, আপনি কাজ করতে থাকলে লেভেল বাড়তে থাকবে ও বিভিন্ন ব্যাজ খুলতে থাকবে।

এছাড়াও রয়েছে লিডারবোর্ড, যেখান থেকে সকল ক্রাউডসোর্স অংশগ্রহণকারীর মধ্যে আপনার অবস্থান জানতে পারবেন। কাজ ভিত্তিক কারা কারা প্রথম ১০০ জনের মধ্যে রয়েছে সেটিও জানা যাবে।

গুগল ক্রাউডসোর্স এ কি ধরণের কাজ থাকে ?

  • Facial Expressions – মুখের অনুভূতি প্রকাশ দেখে আবেগ বুঝতে হবে।
  • Smart Camera – কিছুর ছবি তোলা আর স্মার্ট ক্যামেরা ছবির বিষয়বস্তু ঠিক আন্দাজ করছে কি না দেখা।
  • Handwriting Recognition – হাতের লেখা দেখে আপনাকে সেটি টাইপ করে দিতে হবে।
  • Image Capture – ছবি তুলতে হবে আর ছবি সম্পর্কিত ট্যাগ দিতে হবে।
  • Sentiment Evaluation – মনোভাব বোঝা।
  • Image caption – ছবির শিরোনাম মূল্যায়ন করা।
  • Assistant Tutor – গুগল অ্যাসিস্ট্যান্ট কে উন্নত করা।
  • Translation – ভাষা অনুবাদ করা।
  • Image Label Verification – ছবি যাচাইকরণ।
  • Translation Validation – সঠিক অনুবাদ বেছে নেওয়া।

কিভাবে গুগল ক্রাউডসোর্স ব্যবহার করবেন ?

ক্রাউডসোর্স মোবাইল অ্যাপ বা ওয়েবসাইট ভার্সন দুভাবেই ব্যবহার করতে পারবেন। আপনার যদি এন্ড্রইড মোবাইল ডিভাইস থাকে তাহলে গুগল প্লে স্টোর থেকে ক্রাউডসোর্স অ্যাপ ইনস্টল করে কাজ শুরু করতে পারেন। আপনি যদি ওয়েব ভার্শনে ক্রাউডসোর্স ব্যবহার করতে চান তাহলে আপনার কম্পিউটারের যেকোনো ওয়েব ব্রাউসিং সফটওয়্যার যেমন গুগল ক্রোম, মজিলা ফায়ারফক্স, অপেরা ব্রাউসার ইত্যাদির মাধ্যমে ব্যবহার করতে পারেন।

ওয়েব ভার্সনে ক্রাউডসোর্স ব্যবহার করতে চাইলে আপনাকে ক্রাউডসোর্স এর ওয়েবসাইট এ যেতে হবে, ওয়েবসাইটের ঠিকানাটি > https://crowdsource.google.com এবং আপনার গুগল/জিমেইল একাউন্ট দিয়ে সাইন ইন করতে হবে।

ক্রাউডসোর্স এর কাজ করতে গেলে আপনাকে ভাষা বেছে নিতে হবে, আপনি যে যে ভাষা জানেন বা যে যে ভাষাতে কাজ করতে সক্ষম সেগুলি বেছে নেবেন। আপনি চাইলে ক্রাউডসোর্স মোবাইল এবং ক্রাউডসোর্স ওয়েবসাইটে আলাদা ভাষা বেছে নিতে পারেন। আপনার বেছে নেওয়া ভাষা অনুযায়ী আপনি ক্রাউডসোর্স এর কাজ পাবেন। আপনি যদি একাধিক ভাষা বেছে নিয়ে থাকেন তবেই ট্রান্সলেশন এর কাজ আপনার জন্য আসবে। আপনি যে ভাষাতে সাবলীল সেই ভাষা বেছে নেবেন, তাতে আপনার কাজ করতে সুবিধা হবে। নতুন ভাষা বেছে নিতে বা ভাষা বদল করতে হ্যাম বার্গার মেনু থেকে সেটিংস এ যেতে হবে।

মনে রাখবেন যে, ক্রাউডসোর্স এর কাজগুলি ওয়েব সাইট ভার্সনে আর মোবাইল অ্যাপে কিছুটা আলাদা হয়। যেমন ” Image Capture (ছবি তোলা, ট্যাগ দেওয়া)” এই কাজটি শুধুমাত্র মোবাইল অ্যাপে থেকেই করা যায়। এইরকম দুএকটি পার্থক্য আছে।

ক্রাউডসোর্স সম্পর্কিত গুরুত্বপূর্ণ লিংক গুলি



গুগল ক্রাউডসোর্স সম্পর্কে সহজে বুঝতে নিচের ভিডিও দেখুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here