পেটিএম পোস্টপেড : আজ খরচ করুন, পরের মাসে টাকা মেটান

0
351
PayTM Postpaid

PayTM কি তা নিশ্চয় আপনাদের কাছে অজানা নয়। আপনি যদি পেটিএম গ্রাহক হন তাহলে আপনার জন্য রয়েছে সুখবর! কারণ পেটিএম চালু করেছে পেটিএম পোস্টপেড। পেটিএম পোস্টপেড হলো ICICI ব্যাঙ্ক দ্বারা পরিচালিত একটি ক্রেডিট ফেসিলিটি পরিষেবা এর মাধ্যমে পেটিএম থেকে কোনো কিছু খরচ করা বা কেনার পর পরের মাসে বিল মেটানোর সুযোগ পাবেন। পেটিএম এখানে সুবিধা প্রদানকারী সংস্থা হিসাবে কাজ করছে আর পিছনে রয়েছে ICICI ব্যাঙ্ক। আপনি যদি এই পরিষেবা গ্রহণ করেন তাহলে আপনি ক্রেডিট লিমিট পাবেন এবং ওই লিমিট অনুযায়ী আপনি পেটিএম থেকে বিভিন্ন ভাবে খরচ করে যেমন মোবাইল/ডিটিএইচ রিচার্জ, ট্রাভেল (ট্রেন/বাস/ফ্লাইট) বুকিং, মুভির টিকিট বুকিং ও অনলাইন শপিং করে পরের মাসে ৭ তারিখের মধ্যে পেমেন্ট করতে পারবেন কোনো অতিরিক্ত চার্জ ছাড়াই। ইন্টারেষ্টিং লাগছে ? আসুন আরও জেনে নেওয়া যাক এই পোস্ট থেকে।

বর্তমানে সাময়িক কালের জন্য এই পরিষেবাটি বন্ধ রয়েছে।

পেটিএম পোস্টপেডের কি কি সুবিধা ?

  • ৬০,০০০ টাকা পর্যন্ত ক্রেডিট লিমিট পেতে পারেন।
    • আবেদনের তাৎক্ষণিক অনুমোদন, কোনো ডকুমেন্টস লাগে না আর কোনো প্রসেসিং ফী নেই।
  • এখন ব্যয় করুন আর পরের মাসে পরিশোধ করুন।
    • ক্রেডিট লিমিট (স্পেন্ডিং লিমিট) অনুযায়ী সারা মাস ধরে বিভিন্ন ধরণের কেনাকাটা করুন আর সমস্ত লেনদেন একটি বিল আকারে পেয়ে যান এবং বিল মেটান।
  • সুদ ০%! ফী নেই! শুল্ক নেই!
    • পেটিএম পোস্টপেডের বিল পরের মাসে ৭ তারিখের মধ্যে পেমেন্ট করে দিলে কোনো অতিরিক্ত চার্জ দিতে হবে না।
  • দ্রুত পেমেন্ট আর তাৎক্ষণিক রিফান্ড
    • পেটিএম পোস্টপেড পেমেন্ট অপসন ব্যবহার করলে ওটিপি/পাসওয়ার্ড এর ঝামেলা নেই তবে পাসকোড দিতে হতে পারে এবং এক ক্লিকেই পেমেন্ট হয়ে যায়। নেট ব্যাঙ্কিং / ডেবিট কার্ড দিয়ে পেমেন্ট করতে যা সময় লাগে তারচেয়ে অনেক কম সময়ে পেমেন্ট হয়ে যায় এর মাধ্যমে। অর্ডার ক্যানসেল হলে টাকা ফেরত পেয়ে যান সাথে সাথেই।
  • বিশেষ বিশেষ পুরস্কার পান
    • পেটিএম পোস্টপেড ব্যবহার করার সাথে পেতে পারেন মুভি টিকিট, ক্যাশ ব্যাক ও অন্যান্য অফার।

PayTM Postpaid পরিষেবা শুধুমাত্র PayTM Android অ্যাপের মাধ্যমে পাওয়া যাচ্ছে। ভবিষ্যতে PayTM ওয়েব ভার্সনে পাওয়া যেতে পারে।

পেটিএম পোস্টপেড কিভাবে চালু করবেন ?

এই পরিষেবা পেতে গেলে আপনাকে পেটিএম গ্রাহক হতে হবে। আপনার এন্ড্রইড ফোনের PayTM অ্যাপ খুলে, হোম স্ক্রিনে থাকা PayTM Postpaid অপশনে ক্লিক করুন (হোম স্ক্রিনে যদি না খুঁজে পান তাহলে আপনার পেটিএম প্রোফাইলে পেয়ে যাবেন বাঁ দিকের মেনুতে ক্লিক করুন)।

এবার আপনি পেটিএম পোস্টপেড সম্পর্কিত সংক্ষিপ্ত তথ্য দেখতে পাবেন, ঠিক তার নিচে থাকা “Activate My Paytm Postpaid” অপশনে ক্লিক করুন এরপর “Start Shoping Now” তে ক্লিক করুন। প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই আপনার পেটিএম পোস্টপেড এক্টিভেট হয়ে যাবে এবং আপনি ক্রেডিট লিমিট পেয়ে যাবেন।

সর্বোচ্চ ৬০,০০০ টাকা লিমিট পেতে পারেন। কে কত ক্রেডিট লিমিট পাবে সেটি আইসিআইসিআই ব্যাঙ্ক তাদের নিয়ম অনুযায়ী নির্ধারণ করে এবং ক্রেডিট লিমিট নির্ধারণের ক্ষেত্রে পেটিএমে কেমন লেনদেন করেছেন সেটিও বিবেচিত হয়। প্রাথমিক ভাবে কেউ ৫০০, ৭০০, ৪০০০ টাকা অবধি লিমিট পাচ্ছেন।

অ্যাকাউন্ট খোলার সময় নাম, লিঙ্গ, জন্ম তারিখ, ইমেল আইডি, বর্তমান ঠিকানা, আধার নম্বর ও প্যান নম্বর প্রয়োজন হতে পারে আর ক্ষেত্র বিশেষ এই অ্যাকাউন্ট খুলতে বেশি সময় লাগতে পারে। এই পরিষেবা ব্যবহার করতে থাকলে ক্রেডিট লিমিট প্রয়োজন মাফিক বাড়তে পারে।

পেটিএম পোস্টপেডের মাধ্যমে কিভাবে কিনবেন / খরচ করবেন ?

পেটিএমে পেমেন্ট করার সময় “Use Paytm Postpaid” অপশনে ক্লিক করে নেবেন। ওটিপি / পাসওয়ার্ডের ঝামেলা নেই তবে পাসকোড দিতে হতে পারে, সাধারণত এক ক্লিকেই পেমেন্ট হয়ে যায়। বর্তমানে মোবাইল ও ডিটিএইচ রিচার্জ, ট্রাভেল বুকিং, মুভি টিকিট, অনলাইন শপিং এর ক্ষেত্রে পেটিএম পোস্টপেড ব্যবহার করা যাচ্ছে, তবে আগামীতে অনেক কিছুতেই পেটিএম পোস্টপেড ব্যাবহার করা যাবে।

পেটিএম পোস্টপেডের ব্যালান্স (লিমিট ডিটেলস) অথবা বিল (স্টেটমেন্ট) চেক কিভাবে করবেন ?

  • PayTM অ্যাপে থাকা পেটিএম পোস্টপেড অপশনে ক্লিক করুন অথবা পাসবুক অপশনে ক্লিক করুন। পেটিএম পোস্টপেডের ব্যালান্স বা ডিজিটাল ক্রেডিট লিমিটের বিবরণ সহ লেনদেন এর হিসাব এখানেই পেয়ে যাবেন।
  • মাসের প্রথম দিনে, আগের মাসের করা লেনদেন এর বিল/স্টেটমেন্ট তৈরী হওয়ার পর সেটি PayTM অ্যাপের পেটিএম পোস্টপেড সেক্শনে দেখতে পাবেন এছাড়াও বিল/স্টেটমেন্ট ইমেলে পেয়ে যাবেন। বিল তৈরী হলে Paytm অ্যাপ নোটিফিকেশন বা ফোনে SMS মারফত জানতে পারবেন।

পেটিএম পোস্টপেডের বিল পেমেন্ট / পরিশোধ কিভাবে করবেন ?

মাসের প্রথম দিনেই, আগের মাসের করা সমস্ত লেনদেন মিলিয়ে স্টেটমেন্ট আকারে একটি বিল তৈরী হয়ে যাবে। বিল তৈরী হওয়ার পর পেটিএম পোস্টপেড সেক্শনে “Pay Now” অপশনে ক্লিক করে পেটিএম ওয়ালেট / ডেবিট কার্ড / নেট ব্যাঙ্কিং এর মাধ্যমে সহজেই পরিশোধ করতে পারবেন। বিল তৈরী হওয়ার পর সাত দিনের মধ্যে বিল মেটালে কোনো অতিরিক্ত চার্জ লাগবে না। এই সাত দিনের মধ্যে বকেয়া না মেটালে বিল এর টাকার সঙ্গে অতিরিক্ত চার্জ দিয়ে মেটাতে হবে। বিল আংশিক ভাবে বা EMI করে মেটানো যাবেনা বিলের সমস্ত টাকা একেবারেই মেটাতে হবে। টাকা জমা করার পর ডিউ বিল ক্লিয়ার হতে ৪৮ ঘন্টা পর্যন্ত সময় লাগতে পারে, তবে ডিউ বিল ক্লিয়ার হলেই আপনি ফোনে এসএমএস পেয়ে যাবেন। সময়মতো বিল না দিলে আপনার একাউন্ট ব্লক হয়ে যাবে।

রিপেমেন্টের ব্যাপারে আরো একটি ব্যাপার জেনে রাখা দরকার যে পেটিএম পোস্টপেডের মাধ্যমে আপনি পেমেন্ট করলেই পোস্টপেড সেকশনে পে নাও বাটন চলে আসবে এবং আপনি চাইলেই বিল জেনারেট হওয়ার আগেও পরিশোধ করতে পারবেন। বিল তৈরী হওয়ার আগে বিল মেটালেও কোনো অসুবিধা নেই, আগে ভাগে বিল মেটালে ভবিষ্যতে আপনার স্পেন্ডিং লিমিট (ক্রেডিট লিমিট) বাড়তে পারে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here