ভারতের আকাশে ড্রোন ওড়াবেন ? জানুন নিয়ম – ডিজিটাল স্কাই – digitalsky.dgca.gov.in

0
249
Digital Sky Platform

উড়ান জগতে নতুন সংজোযন ড্রোন। নজরদারি, এরিয়াল ফটোগ্রাফি, সিনেমা সহ অনেক কিছুতেই ভারতে ড্রোনের ব্যবহার বেশ বেড়েছে। অনেকে বাণিজ্যিক উদ্দেশ্যে ড্রোন ওড়ান আবার অনেকে শখ করে ড্রোন উড়িয়ে থাকেন। বিদেশে ড্রোনের ব্যবহার বহুল প্রচলিত থাকলেও ভারতে এর ব্যবহার সবে মাত্র শুরু হয়েছে, যেহেতু এতো দিন ভারতে ড্রোন ওড়ানোর নিয়ম-কানুন ঠিক ভাবে তৈরিই ছিলোনা। ২৭ অগাস্ট ২০১৮ তে ভারতে ড্রোন ওড়ানোর বিধিনিয়ম তৈরী হয়েছে এবং ১ ডিসেম্বর ২০১৮ থেকে ওই বিধিনিয়ম কার্যকরী হয়েছে। ভারতে এখন নিয়ম মেনে ড্রোন ওড়ানো যাবে।

ড্রোনের অনেক নাম আসুন জেনে নেওয়া যাক

  • Unmanned Aircraft System (UAS)
  • Remotely Piloted Aircraft System (RPAS)
  • Unmanned Aerial Vehicle (UAV)

ড্রোন ওড়ানোর সময় কি কি করবেন আর কি কি করবেন না

কি কি করণীয়

  • অনুমতি না থাকলে ড্রোন ওড়ানো যাবেনা। নিশ্চিত হন যে আপনার ড্রোন Digital Sky এর “No Permission- No Take off” (NPNT) পলিসি মেনে চলছে। (তবে DGCA দ্বারা নিয়ন্ত্রিত নয় এমন আকাশক্ষেত্রে ৫০ফুট পর্যন্ত, ন্যানো ক্যাটাগরি ড্রোনের ক্ষেত্রে এই নিয়মে ছাড় আছে)।
  • DGCA নিয়ন্ত্রিত আকাশক্ষেত্রে ড্রোন ওড়ানোর জন্য DGCA থেকে Unique Identification Number (UIN) নিতে হবে এবং আপনার ড্রোনে ওই ইউনিক আইডি সেঁটে দিতে হবে।
  • বানিজ্যিক কার্যকলাপের জন্য ড্রোন ওড়ানোর জন্য যদি প্রয়োজন হয়, DGCA থেকে আনম্যানড এয়ারক্রাফ্ট অপারেটর পারমিট (UAOP) নিতে হবে এবং সেটিকে হাতের নাগালে রাখতে হবে।
  • প্রত্যেকবার উড়ানের আগে ডিজিটাল স্কাই প্লাটফর্মের মাধ্যমে অনুমতি নিতে হবে।
  • নিশ্চিত হবেন যে ড্রোন ভালো অবস্থাতে রয়েছে (ক্ষতিগ্রস্ত নয়) এবং নিরাপদে উড়ানের জন্য উপযুক্ত।
  • বাধাবিঘ্ন খেয়াল করবেন; মোবাইল ডিভাইস থেকে অথবা সিগন্যাল ব্লক হলে বাধাবিঘ্ন ঘটতে পারে, ড্রোন ওড়ানোর সময় সতর্ক থাকবেন।
  • শুধুমাত্র দিনের বেলাতে ওড়াবেন (সূর্যোদয়ের পরে ও সূর্যাস্তের আগে)।
  • ভালো আবহাওয়াতে ওড়াবেন; ভালো আবহাওয়া থাকলে শুধুমাত্র ভালোভাবে ওড়াতে পারবেন তাই নয় বাতাসে ভালোভাবে এটাকে নিয়ন্ত্রণ ও করতে পারবেন।
  • ভিজ্যুয়াল লাইন অফ সাইট (VLOS) এর মধ্যেই ওড়াবেন; সর্বদা আপনার দৃষ্টিশক্তির নাগালের মধ্যেই ড্রোন ওড়াবেন।
  • উড়ানের নির্দেশিকা মেনে চলবেন।
  • ড্রোনের জন্য ব্যয় করার আগে প্রস্তুতিপর্বে কাজ সারুন। নিশ্চিত হন আপনি কর্মক্ষম ও নিয়ন্ত্রকের বিষয়গুলি পরিষ্কারভাবে বুঝেছেন।
  • সীমাবদ্ধতাযুক্ত আকাশসীমা / ড্রোন ওড়ানো যাবেনা এরকম অঞ্চল সম্পর্কে অবগত থাকুন।
  • এয়ারপোর্ট / হেলিপোর্ট থেকে দূরে থাকুন।
  • মানুষের গোপনীয়তাকে সম্মান দিন।
  • স্থানীয় পুলিশকে ড্রোন ওড়ানোর কার্যকলাপ সম্পর্কে জানিয়ে রাখুন। কখনো পুলিশের সম্মুখীন হলে সমস্ত প্রয়োজনীয় তথ্যাদি প্রদান করুন।
  • আপনার উড়ানের তথ্য লিপিভুক্ত করুন এবং কোনো ঘটনা / দুর্ঘটনা হলে সম্পর্কিত কতৃপক্ষ যেমন DGCA / স্থানীয় পুলিশকে জানান।

কি কি করবেন না

  • ভূপৃষ্ঠ থেকে ৫০ফুট (১৫মিটার) এর বেশি উচ্চতাতে ন্যানো ড্রোন ওড়াবেন না।
  • ভূপৃষ্ঠ থেকে ২ু০০ফুট (৬০মিটার) এর বেশি উচ্চতাতে মাইক্রো ড্রোন ওড়াবেন না।
  • ভূপৃষ্ঠ থেকে ৪০০ফুট (১২০মিটার) এর বেশি উচ্চতাতে ড্রোন ওড়াবেন না।
  • যেকোনো আকাশযান (মানুষযুক্ত /মানুষবিহীন) এর কাছে ড্রোন ওড়াবেন না।
  • বিমান ও হেলিকপ্টার ওঠানামার স্থানগুলিতে ড্রোন ওড়াবেন না।
  • অনুমতি ছাড়া দলবদ্ধ মানুষদের, প্রকাশ্য অনুষ্ঠানের অথবা মানুষভর্তি স্টেডিয়ামের ওপরে ড্রোন ওড়াবেন না।
  • সরকারি সুবিধা / মিলিটারি বেস অথবা যেকোনো ড্রোন নিষিদ্ধ এলাকাতে ড্রোন ওড়াবেন না।
  • অনুমতি ছাড়া ব্যক্তিগত সম্পত্তির ওপরে ড্রোন ওড়াবেন না।
  • DGCA দ্বারা নিয়ন্ত্রিত আকাশক্ষেত্রে এয়ারপোর্টের কাছে উড়ানের পরিকল্পনা অথবা AAI/ADC অনুমতি ছাড়া ড্রোন ওড়াবেন না (কমপক্ষে আসল ক্রিয়াকলাপ শুরুর ২৪ঘন্টা আগে)।
  • বিপজ্জনক বস্তু ফেলবেন না অথবা বহন করবেন না।
  • মাদক বা নেশা দ্বারা প্রভাবিত হয়ে ড্রোন ওড়াবেন না।
  • চলমান যান, জাহাজ অথবা আকাশযান থেকে ড্রোন ওড়াবেন না।

ভারতে ড্রোন ওড়ানো সম্পর্কে আরো তথ্য জানতে এই লিংক দেখতে পারেন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here